শিরোনাম :
প্রচ্ছদ / হাদিস / সহিহ গ্রন্থসমুহ / সহিহ বুখারী (তাওহীদ)

সহিহ বুখারী (তাওহীদ)

মুসলিম হওয়ার জন্য কেবল কালেমা পড়াই কি যথেষ্ট?

অবশ্যই নয়। কালেমা হল ইসলাম-গৃহ প্রবেশ করার চাবি। প্রবেশ করার পরেও এমন কাজ আছে, যা না করলে সে মুসলিম থাকতে পারে না। ঈমানের ছয় রুকন ছাড়া আরো অনেক কিছুর প্রতি ঈমান জরুরী। প্রকৃত মুসলিম হতে অনেক কিছু করার আছে। মহানবী (সঃ) মুআয (রঃ)-কে ইয়ামান পাঠাবার সময়ে (তাঁর উদেশ্যে) বললেন, “তাঁদের ...

Read More »

দেখুন, ইসলাম কি শেখায়?

দেখুন, ইসলাম কী শেখায়? আবদুল্লাহিল হাদী বিন আবদুল জলীল / 28/11/2010 1. প্রতারণা ও ধোকাবাজী করা হারামঃ রাসূল সা বলেছেনঃ ﻣَﻦْ ﻏَﺸّﻨﺎ ﻓَﻠَﻴْﺲَ ﻣِﻨِّﺎ ‘যে আমাদের সাথে প্রতারণা করে তার সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক নেই।’ (মুসলিম) 2. প্রতিবেশীকে কষ্ট দেয়া হারাম: রাসূল সা বলেছেনঃ ﻣَﻦْ ﻛَﺎﻥَ ﻳُﺆْﻣِﻦُ ﺑِﺎﻟﻠَّﻪِ ﻭَﺍﻟْﻴَﻮْﻡِ ﺍﻟْﺂﺧِﺮِ ...

Read More »

যালেম, পাপী ও বিদআতীদের সাথে জিহাদ

এই প্রকার লোকদের সাথে জিহাদের তিনটি স্তর রয়েছে। (১) ক্ষমতা থাকলে তাদের বিরুদ্ধে হাত দিয়ে জিহাদ করতে হবে। (২) হাত দিয়ে করতে অক্ষম হলে জবান দিয়ে করতে হবে। (৩) আর তাতেও অক্ষম হলে অন্তর দিয়ে করতে হবে। উপরের আলোচনা থেকে আমরা জিহাদের সর্বমোট ১৩টি স্তর খুঁজে পাচ্ছি। নাবী (সাঃ) বলেন- ...

Read More »

স্বপ্নের বিষয়ে নাবী (সাঃ) এর সুন্নাত

নাবী (সাঃ) থেকে সহীহ সূত্রে বর্ণিত হয়েছে যে, ভাল স্বপ্ন আল্লাহর পক্ষ হতে এবং অপছন্দনীয় স্বপ্ন শয়তানের পক্ষ হতে। সুতরাং যে ব্যক্তি অপছন্দনীয় কোন স্বপ্ন দেখে সে যেন বাম দিকে থুথু ফেলে এবং শয়তান থেকে আল্লাহর কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করে। তাহলে শয়তান তার কোন ক্ষতি করতে পারবেনা। আর সে যেন ...

Read More »

হাঁচি বের হওয়ার সময় নাবী (সাঃ) এর সুন্নাত

সহীহ বুখারীতে নাবী (সাঃ) থেকে বর্ণিত হয়েছে যে, তিনি বলেছেন- إِنَّ اللهَ يُحِبُّ الْعُطَاسَ وَيَكْرَهُ التَّثَاؤُبَ فَإِذَا عَطَسَ فَحَمِدَ اللهَ؛ فَحَقٌّ عَلَى كُلِّ مُسْلِمٍ سَمِعَهُ أَنْ يُشَمِّتَهُ، وَأَمَّا التَّثَاؤُبُ؛ فَإِنَّمَا هُوَ مِنَ الشَّيْطَانِ فَلْيَرُدَّهُ مَا اسْتَطَاعَ، فَإِذَا قَالَ: هَا ضَحِكَ مِنْهُ الشَّيْطَانُ ‘‘নিশ্চয়ই আল্লাহ্ হাঁচি দেয়া পছন্দ করেন এবং হাই ...

Read More »

কারও কাছে প্রবেশের পূর্বে অনুমতি প্রার্থনার ক্ষেত্রে রসূল (সাঃ) এর সুন্নাত

নাবী (সাঃ) থেকে সহীহ সূত্রে বর্ণিত হয়েছে যে, তিনি বলেছেন- কারও বাড়িতে বা ঘরে প্রবেশের পূর্বে তিনবার অনুমতি প্রার্থনা করতে হবে। এভাবে অনুমতি চাওয়ার পর যদি বাড়ির মালিক অনুমতি দেয় তাহলে প্রবেশ করতে হবে। অন্যথায় ফেরত আসতে হবে।[1] নাবী (সাঃ) থেকে সহীহ সূত্রে আরও বর্ণিত হয়েছে যে, إِنَّمَا جُعِلَ الاسْتِئْذَانُ ...

Read More »

সালাম ও সালামের উত্তর প্রদানে নাবী (সাঃ) এর হিদায়াত

সহীহ বুখারী ও মুসলিমে বর্ণিত হয়েছে যে, নাবী (সাঃ) বলেছেন- أَفْضَلُ الإِسْلَاِم أن تُطْعِمُ الطَّعَامَ وَتَقْرَأُ السَّلامَ عَلَى مَنْ عَرَفْتَ وَمَنْ لَمْ تَعْرِفْ ‘‘ইসলামের সর্বোত্তম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, খাদ্য প্রদান করা এবং পরিচিত-অপরিচিত সকলকে সালাম দেয়া’’। বুখারী ও মুসলিমে আরও বর্ণিত হয়েছে, নাবী (সাঃ) বলেন- خَلَقَ اللهُ آدَمَ وَطُولُهُ سِتُّونَ ذِرَاعًا، ...

Read More »

পানাহার গ্রহণের সময় প্রয়োজনীয় কথা বলা

কাউকে খাওয়ার দাওয়াত দেয়া হলে অন্য কেউ যদি বিনা দাওয়াতেই তার সাথে চলে আসে তাহলে মেজবানকে তথা নিমন্ত্রণকারীকে বলতে হবে যে, এই লোকটি বিনা দাওয়াতে আমাদের সাথে চলে এসেছে। আপনি ইচ্ছা করলে তাকে প্রবেশের অনুমতি দিতে পারেন। আর যদি তা না করেন তাহলে সে ফেরত যাবে। নাবী (সাঃ) খাদ্য গ্রহণ ...

Read More »

আযান ও ইকামতের ক্ষেত্রে রসূল (সাঃ) এর সুন্নাত

নাবী (সাঃ) থেকে সহীহ সূত্রে বর্ণিত হয়েছে যে, তিনি তারজীসহ  এবং তারজী ছাড়া- এ দু’টি পদ্ধতিতেই আযান দেয়া সুন্নাত হিসাবে সাব্যস্ত করেছেন।[1] একামতের শব্দগুলো একবার করে বলা সহীহ হাদীস দ্বারা প্রমাণিত। তবে দুইবার করে অর্থাৎ আযানের ন্যায় বলাও জায়েয আছে।[2] (কিন্তু একবার করে বলার হাদীসগুলোর সহীহ বুখারী ও মুসলিম শরীফে ...

Read More »

টয়লেটে প্রবেশের পূর্বে তিনি এই দু’আ পাঠ করতেনঃ

اللّٰهُمَّ  إنِّيْ أعُوْذُبِكَ مِنَ الْخُبُثِ وَالْخَباَئِثِ ‘‘হে আল্লাহ্! তোমার নিকট আশ্রয় কামনা করি-যাবতীয় নোংরা জিন ও জিন্নী থেকে’’।[1] সেখান থেকে বের হয়ে পাঠ করতেনঃغُفْرَانَكَ  ‘‘তোমার ক্ষমা চাই হে প্রভু!’’ নাবী (সাঃ) পেশাব-পায়খানার সময় কিবলা সামনে বা পিছনে রাখতেন না। সহীহ সূত্রে বর্ণিত হয়েছে যে, তিনি তা থেকে নিষেধ করেছেন। আরও বর্ণিত ...

Read More »